আজ মঙ্গলবার | ২৭ শ্রাবণ, ১৪২৭ | ১১ আগস্ট, ২০২০ | ২০ জিলহজ, ১৪৪১ | রাত ৩:১৪
গোপালগঞ্জ, গোবড়া সবান রোড, ঢাকা, বাংলাদেশ
মঙ্গলবার || রাত ৩:১৪ || ১১ আগস্ট, ২০২০

সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত না নিতে পারলে আপনার জীবনের সফলতা হারাবেন !

শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক

রবিবার, ২৬ জুলাই ২০২০ | ৪:১৬ অপরাহ্ণ

সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত না নিতে পারলে আপনার জীবনের সফলতা হারাবেন !
ফাইল ছবি

জীবনে চলার পথে সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া কতটা জরুরি চলুন একটি গল্পের মাধ্যমে জেনে নেই।
একবার একটি অনুষ্ঠানের জন্য এক খোলা মাঠে ছাউনি দিয়ে রান্নার আয়োজন করা হয়েছে। যে বাবুর্চি রান্না করছিলেন তিনি একটা পাত্রে পানি নিয়ে সেটাকে চুলার ওপর বসিয়ে অন্য আরেকটা ছোট কাজ সেরে নেওয়ায় মনোনিবেশ করলেন।

ইতিমধ্যে একই পথ দিয়ে একটি ব্যাঙ লাফাতে লাফাতে যাওয়ার সময় টুক করে ঐ পাত্রের মধ্যে এসে পড়ল । এবার বাটিতে পানি থাকায় বেশ আরাম পেল এবং সে খুবই আনন্দিত ও উচ্ছ্বসিত হল।

কিন্তু পাত্রটি চুলার উপর বসানো থাকায় পানি ধীরে ধীরে পানি উষ্ণ হতে শুরু করলো। প্রাথমিক অবস্থায় ব্যাঙ টি উষ্ণতা বৃদ্ধির বিষয়টি খুব একটা ভ্রুক্ষেপ করলো না বরং নিজের শরীরের তাপমাত্রাকে পানির তাপমাত্রা সহনীয় পর্যায়ে নিতে শুরু করলো।

যদিও সে চাইলে লাফিয়ে পাত্রটি থেকে বের হতে পারত, তবে ব্যাঙ টি লাফ দিলো না। কিছুক্ষণ পর পানি আরও একটু গরম হলো তখনও ব্যাঙ পাত্রটি থেকে লাফিয়ে বের হল না। বরং পানির তাপমাত্রার সাথে নিজের শরীরের তাপমাত্রাকে মানিয়ে নিল। এমনটা করতে গিয়ে ধীরে ধীরে ব্যাঙটির শরীরের শক্তি কমতে লাগলো ।

তাপমাত্রা যখন আরো বেড়ে পানি ফুটন্ত অবস্থায় চলে যায় তখন ব্যাঙ টি আর সহ্য করতে না পেরে সিদ্ধান্ত নেয় লাফিয়ে পাত্র থেকে বের হবে কিন্তু তখন ব্যাঙ এর শরীরে লাফিয়ে বের হওয়ার মতো সামর্থ্য অথবা শক্তি কোনটাই ছিল না।

অনেক চেষ্টা করল কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে, এতক্ষণ ধরে ক্রমাগত তাপমাত্রার সাথে মানিয়ে নিতে গিয়ে ব্যাঙ টির শারীরিক পেশি গুলো অবশ হয়ে গিয়েছিল। শারীরিক শক্তি কমে একেবারে নিস্তেজ হয়ে পড়েছিল সে। যার ফলে ব্যাঙ টি পাত্র থেকে পালাতে পারলো না এবং শেষ পর্যায়ে পাত্রের গরম পানির তাপে ব্যাঙ টি মারা গেল।

এখন যদি প্রশ্ন করা হয় ব্যাঙ টি কেন মারা গেল ?

তাহলে বেশিরভাগ মানুষেরই জবাব হবে গরম পানির কারণে ব্যাঙ টির এমন পরিণতি হয়েছে ।
কিন্তু না!
ব্যাঙ টি গরম পানির তাপের কারণে মারা যায়নি, মারা গেছে সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত না নেওয়ার কারণে!

একইরকম আমরা আমাদের উপর হওয়া অন্যায়গুলো দিনের-পর-দিন মুখ বুজে সহ্য করতে থাকি আর ভাবতে থাকি নিশ্চয়ই এক সময় সব ঠিক হয়ে যাবে। প্রত্যেকটি বিষয় সহ্য করার একটা সীমা থাকে। আমাদের প্রত্যেকের মনে রাখতে হবে সহ্য করার ক্ষমতা থাকা সত্যেও আমাদের সহ্য সীমা অতিক্রম করা যাবে না। এতে নিজের জীবনের স্বকীয়তা হারিয়ে যাবে!

ধরুন আপনার কোন প্রিয়জন আপনার সাথে প্রতারণা বা আপনাকে অপমান করল, আপনি যেহেতু তাকে পছন্দ করেন আপনি তাকে ক্ষমা করে দিয়ে সহ্য করতে থাকলেন। এভাবে আপনি যদি প্রতিবার ক্ষমা করতে থাকেন এবং আপনার সীমা নির্ধারণ করতে না পারেন তাহলে তিনি কখনো শোধরাবেন না এবং তিনি ভেবে নেবেন এটাই আপনার প্রাপ্য। আপনিও তার ওপর থেকে আপনার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলবেন।

তাই আমাদের সকলের উচিত জীবন নিয়ে একটু সচেতন হওয়া এবং জীবন সাজানোর সিদ্ধান্তসমূহ সঠিক সময়ে গ্রহণ করা। যদি আমরা জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত সমূহ নিতে দেরি করি তাহলে আমাদের অবস্থা হবে গল্পের সেই ব্যাঙ এর মত।

Gopalganj, Gobra Saban Road, Dhaka Bangladesh
Acting Editor: Masum Akter Tanim, Newsroom And Management Mobile: +8801763-234376 || Communication With The Editorial Council: 01780-242169
Email: press24.info2020@gmail.com, press24.bangladesh2020@gmail.com, Copyright © 2019-2020, development by webnewsdesign.com