আজ শুক্রবার | ৩০ শ্রাবণ, ১৪২৭ | ১৪ আগস্ট, ২০২০ | ২৩ জিলহজ, ১৪৪১ | রাত ৩:০০
গোপালগঞ্জ, গোবড়া সবান রোড, ঢাকা, বাংলাদেশ
শুক্রবার || রাত ৩:০০ || ১৪ আগস্ট, ২০২০

স্বর্ণালংকার চোর এখন কয়েকটি প্লট বাড়ি ও ফ্ল্যাটের মালিক

শেয়ার করুন

ডেস্ক রিপোর্ট-

শুক্রবার, ৩১ জুলাই ২০২০ | ৬:৩২ অপরাহ্ণ

স্বর্ণালংকার চোর এখন কয়েকটি প্লট বাড়ি ও ফ্ল্যাটের মালিক
রাজধানীতে বাবা-ছেলে আর ভাগ্নের স্বর্ণালংকার চুরির অভিনব চক্র

কয়েক বছরে বিভিন্ন বাসাবাড়ি থেকে হাতিয়েছেন শতশত ভরি সোনা। চুরির টাকায় দুবাই রাখেন স্ত্রী-পুত্র। স্বর্ণালংকার চোর এখন কয়েকটি প্লট বাড়ি ও ফ্ল্যাটের মালিক।

১১৪ টি সিসি ক্যামেরার ফুটেজ বিশ্লেষণ করে চক্রটিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গেল ২৪ শে ফেব্রুয়ারি হাতিরঝিলের মহানগর আবাসিক এলাকার একটি বাড়ির তৃতীয় তলার একটি ফ্ল্যাট থেকে প্রায় ৫০ ভরি স্বর্ণ ও নগদ ৬০ হাজার টাকা চুরি হয়। ১৯ শে ফেব্রুয়ারি একই এলাকার আরো একটি বাস একটি থেকেও চুরি হয় দুই ভরি স্বর্ণ ও নগদ টাকা।

হাতিরঝিল থানায় মামলার পর অনুসন্ধানে নামে পুলিশ। আশপাশের সিসি ক্যামেরার ১১৪ টি সিসি ক্যামেরার ফুটেজ বিশ্লেষণ করে তারা।

ফুটেছে দেখা যায় চুরি হওয়া বাড়ির সামনে ঘোরাফেরা করছে পাঞ্জাবি পরা এক লোক। প্রথমে বাড়িতে ঢুকে এক যুবক কিছুক্ষণ পর বাড়ীটিতে ঢুকে পাঞ্জাবি পরা লোকটি’ও। ৭ মিনিট ৪২ সেকেন্ড পর কাঁধে ব্যাগ নিয়ে প্রথমে বেরিয়ে আসে যুবক। এরপরই আসে পাঞ্জাবি পরা লোকটি। মোটর সাইকেলে এলাকাছাড়ে তিনজন।

তিনজনকেই শনাক্ত করে পুলিশ। ২০ মার্চ রহমত ও সোহানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরদিন বনশ্রী এলাকা থেকে চুরিতে ব্যবহৃত মোটরসাইকেলসহ গ্রেফতার হয় কাজী আবুল কাশেম।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে বেরিয়ে আসে স্বর্ণচুরি চাঞ্চল্যকর তথ্য। মূলহোতা কাশেম জানান, ১৫ বছর ধরে চুরি তার পেশা।ঢাকার ৫ থেকে ৫০০ বাসায় চুরি করেছে তারা। বিদেশ থেকে ছেলে রহমত ও ভাগ্নে সোহান কেউ দেশে ফিরিয়ে এনে চুরিতে নিয়োগ দেন তিনি। চুরির টাকায় বনশ্রীতে ১৬ স্কয়ার ফিটের ফ্ল্যাট কিনেছেন কাশেম। উত্তরখানে সাড়ে তিন কাঠা জায়গায় তিন তলা বাড়ি ছাড়াও কিনেছেন তিনটি প্লট।

কাশেম জানান বড় ছেলে ও বউ থাকে দুবাই । দুই মেয়ে পড়ালেখা করে দেশের নামিদামি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে।

পুলিশ বলছে, চক্রটি শত শত ভরি স্বর্ণ চুরির কথা স্বীকার করেছে। চোরের দলের প্রধান কাশেম ও তার ছেলে এবং তার ভাগ্নে এই তিনজন মিলে ঘটনাটি ঘটিয়েছে।চোরের দলের প্রধান কাশেম পাড়ায়, পাড়ায়, মহল্লায় ঘুরাঘুরি করে। বিভিন্ন বাসা বাড়ির সামনে দীর্ঘক্ষন ধরে বিভিন্ন ভঙ্গিতে অবস্থান করে, দেখে বারান্দায় কাপড়-চোপড় আছে কিনা? লাইট জলে কিনা? এইসব দেখে দেখে সে সিদ্ধান্ত নেয় যে এই বাসায় কেউ হয়তোবা বাড়িতে নাই। আবার ভাড়াটিয়া হিসেবে তথ্য আনতে ওই বাসায় যায় কিংবা সিকিউরিটির কাছে তথ্য নিয়ে তারা নিশ্চিত হয় যে হ্যাঁ এ বাসায় লোকজন কয়েকদিন ধরে নাই কিংবা কিছুদিন পরে আসবে।

রাজধানীর হাতিরঝিল, রামপুরা, খিলগাঁও ,বাড্ডা, যাত্রাবাড়ী, ডেমরা সহ বিভিন্ন এলাকায় চুরি করত চক্রটি।

Gopalganj, Gobra Saban Road, Dhaka Bangladesh
Acting Editor: Masum Akter Tanim, Newsroom And Management Mobile: +8801763-234376 || Communication With The Editorial Council: 01780-242169
Email: press24.info2020@gmail.com, press24.bangladesh2020@gmail.com, Copyright © 2019-2020, development by webnewsdesign.com